ঢাকা, মঙ্গলবার ১৫ জুন ২১ || ১ আষাঢ় ১৪২৮    Banglarpratidin.com

সন্ত্রাসবিরোধী কথা বলতে গিয়ে সন্ত্রাসের শিকার হন বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা = অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ

আরিফ রব্বানী

প্রকাশিত: ০৮:৫৫ ২১ আগস্ট ২০

সন্ত্রাসবিরোধী কথা বলতে গিয়ে সন্ত্রাসের শিকার হন বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা  =  অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ

সন্ত্রাসবিরোধী কথা বলতে গিয়ে সন্ত্রাসের শিকার হন বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা = অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ

রক্তাক্ত ২১ আগস্ট। দেশের ইতিহাসে নারকীয় সন্ত্রাসী হামলার ১৬তম বার্ষিকী। ২০০৪ সালের এইদিনে সভ্য জগতের অকল্পনীয় হত্যাযজ্ঞ চালানো হয় রাজধানীর বুকে এক রাজনৈতিক সমাবেশে। তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় চালানো হয় এই গ্রেনেড হামলা। বঙ্গবন্ধু এভিনিউর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণে সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে কথা বলতে গিয়ে সন্ত্রাসের শিকার হন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। ঘটনায় দলীয় নেতাকর্মীরা মানববর্ম রচনা করে সভাপতি শেখ হাসিনাকে রক্ষা করলেও ওই হামলায় দলের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও মরহুম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানসহ ২৪জন নেতাকর্মী প্রাণ হারান। স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের মহাসচিব, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মানিত সদস্য অধ্যাপক ডাঃ এম এ আজিজ এক বাণীতে ২১ শে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেছেন, গণতন্ত্রকে অর্থবহ করতে হলে পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ ও সহমর্মিতার পাশাপাশি পরমতসহিষ্ণুতা অপরিহার্য। তিনি বঙ্গকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রাকে বেগবান করতে তার নিজ অবস্থান থেকেও অবদান রাখবে বলে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, হামলাকারীদের লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশ ও আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বহীন করে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে রুখে দেওয়া এবং দেশে জঙ্গিবাদ প্রতিষ্ঠা করা। কিন্তু বাংলাদেশের জনগণ তা হতে দেয়নি এবং ভবিষ্যতেও হতে দেবে না। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে গণতন্ত্রকামী জনগণ একটি আত্মমর্যাদাশীল ও সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এগিয়ে আসবেন বলে মনে করেন তিনি।

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত